পা*ছা দিয়ে লি*ঙ্গ ঢুকানোর সময় ভেস*লিন ব্যবহার করা ঠিক কি না জেনে নিন

পা*ছা দিয়ে লি*ঙ্গ ঢুকানোর সময় ভেস*লিন ব্যবহার করা ঠিক কি না জেনে নিন

আজ আমরা আলোচনা করব এনাল সেক্স বা পায়ুসঙ্গম সম্পর্কে। এটি একটি ঝুকিপূর্ণ যৌ’নক্রিয়া। এতে পায়ুপথে চুলকানি ও ফাটলসহ নানাধরনের যৌ’নবাহিত রোগ হতে পারে। এমনকি এই বদ অভ্যাসটির জন্য হতে পারে মরণব্যাধী এইডস পর্যন্ত। যারা পায়ুপথে সেক্স করেন যৌ’নাঙ্গতে মুখ লাগান, তাদেরকে বলছি,সবচেয়ে অবাক লাগার মধ্যে দুইটি বিষয় আপনাদের সামনে তুলে ধরছিঃ

১) যে সব ছেলে মেয়েরা একে অপরের যৌ’নাঙ্গ চুষেন- এটা নিকৃষ্ট বিকৃতি পশু ভিক্তিক যৌ’ন আচারন। পশুদের হাত নেই বলে পুরুষ পশু তার নারী পশুর যৌ’নাঙ্গতে মুখ লাগিয়ে উত্তেজিত করে। কিন্তু মানুষদের হাত আছে, যৌ’নাঙ্গতে মূখ লাগিয়ে উত্তেজিত করার প্রয়োজন নেই। এ ক্ষেত্রে হাতই যথেষ্ট। তাছাড়া যৌ’নাঙ্গতে মুখ লাগালে যৌ’নাঙ্গতে লেগে থাকা জীবাণু খুব সহজেই আপনার দেহের ভিতরে প্রবেশ করে। ইসলামের কঠোর নিষেধ আছে যৌ’নাঙ্গতে মুখ না লাগানোর। কারণ এই জায়গাটি অপবিত্র, নাপাক। নাপাক জায়গাতে মুখ লাগালে আপনার মুখও অপবিত্র, নাপাক হয়ে যাবে। আপনার মূখ যাতে নাপাক না হয়, সে জন্য মহান আল্লাহ বিকল্প ভাবে মায়ের গর্ভে খাবারের ব্যবস্তা করে আপনাকে লালন করেছেন।

২) যারা পায়ু পথে সেক্স করেন- এই কাজটি ইসলামের দিক থেকে জঘন্য অপরাধ। নবীজি বলেছেন যারা এই কাজটি করবে তারা ধংস হয়ে যাবে। এই বিষয়ে অনেক হাদিসও আছে, আপনি পিছন দিক থেকে করেন, অথবা সামনে দিক থেকে করেন, আপনাকে সেক্স করতে হবে যৌ’নি পথ দিয়েই। পায়ু পথ দিয়ে সেক্স করলে নারীর যৌ’ন অধিকার লঙ্গণ হয়। তাই বিবাহিত ভাই বোনদের প্রতি অনুরোধ রইলো আপনারা সেক্স করার সময় এই বিষয়গুলি মাথায় রেখে সেক্স করবেন।

বাচ্চা হবেনা। এটা জানা জরুরি যে anal সেক্স খুব ঝুকি পূর্ণ যার ফলে anal tears, fissures অথবা incontinence এবং নানাধরনের যৌ’নবাহিত রোগ যেমন HIV হতে পারে। ভারত এবং বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী সহবাস-সম্মতির বয়স ১৬ বছর কেননা এই বয়সের আগে একজন ছেলে ও মেয়ের শরীর সহবাসের ধকল নিতে পারেনা। যদি দুজনের কারও বয়স এর চেয়ে কম হয় তবে এটিকে ধর্ষন বলে গন্য করা হয় এবং এতে করে দুজনকেই জেলে যেতে হতে পারে। এনাল sex এর সময় কি আপনি কনডম ব্যবহার করেন? লুব্রিক্যান্ট ব্যবহার করেন? যদিও পায়ুপথে বীর্য ফেললে প্রেগনেন্ট হওয়ার কোন সম্ভাবনা নেই,কিন্তু অ্যানাল লাইনিং খুব পাতলা এবং খুব সহজেই তা ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। অ্যানাল সেক্স এর ফলে anal tears, fissures অথবা incontinence, হতে পারে। এটা যৌ’নবাহিত রোগ (STD) যেমন HIV এর ঝুঁকি বহন করে।

অ্যানাল সেক্সকে অপছন্দ করার কারণ অ্যানাল সেক্স অনেক ক্ষেত্রেই প্রচন্ড ব্যথা দেয়। অ্যানাসের রেক্টাম এতে কোন কিছু ঢোকার জন্য তৈরি হয় নি, বরং বের হওয়ার জন্য তৈরি হয়েছে। ভ্যাজায়না পেনিস ঢোকার সময় বা বাচ্চা বের হওয়ার জন্য স্ট্রেচ করে। কিন্তু অ্যানাস সেটা করে না। এছাড়া অ্যানাল সেক্সের ফলে অনেক ক্ষেত্রেই মল বের হয়ে যায়, আর সেটা অনেক মেয়েই লজ্জাকর মনে করে এবং সে তার পুরুষের সামনে নিজেকে এভাবে উপস্থিত করতে চায় না। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আ্যানাল সেক্সের ব্যাপক প্রচলন রয়েছে।

অনেকেই প্রশ্ন করেন ‘এনাল সেক্স’ কি করা যাবে? এতে কি মেয়েদের যৌ’ন তৃপ্তি হয়? কিংবা এটা কতটা ক্ষতিকর? এসব প্রশ্নের উত্তর দেয়ার চেষ্টা করা হয়েছে এই নিবন্ধে ৷ এনাল সেক্স ক্ষতিকর হলেও আরামদায়কভাবে করা সম্ভব৷ সেক্ষেত্রে সঙ্গী এবং সঙ্গিনী কিংবা সমকামী জুটির মধ্যে পারস্পরিক বোঝাপড়া থাকা চাই৷ অবশ্যই কনডম ব্যবহার করতে হবে এবং মাত্রাতিরিক্ত চাপ দেয়া যাবে না যাতে কনডম ছিঁড়ে যাওয়ার শঙ্কা থাকে৷ আর ভ্যাসলিন ব্যবহার ক্ষতিকর৷ জায়গাটা পিচ্ছিল করার জন্য বিশেষ ধরনের জেল ব্যবহার করা যেতে পারে

এনাল সেক্স অনেক ঝুঁকিপূর্ণ৷ ভুলভাবে এধরনের সঙ্গম বিভিন্ন রোগের কারণ হতে পারে৷ চিকিৎসকদের ওয়েবসাইট ওয়েবএমডিতে এনাল সেক্সের ক্ষতিকর দিকগুলো বিশদভাবে তুলে ধারা হয়েছে৷ সাইটটিতে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, পায়ুপথে সঙ্গমে এইচআইভি সংক্রমণের শঙ্কা সবচেয়ে বেশি৷ স্বাভাবিক সঙ্গমের তুলনায় এই শঙ্কা ত্রিশ শতাংশ বেশি৷

পায়ুপথে সঙ্গম হিউম্যান পাপিলোমাভাইরাস (এইচপিভি), যা যৌ’নাঙ্গে ক্যানসারের কারণ হতে পারে, ছড়ানোর অন্যতম কারণ৷ হিপাটাইটিস, পারপিসের শঙ্কাও রয়েছে৷

পায়ুপথের মাসেল এবং টিস্যুগুলো সঙ্গমের জন্য প্রস্তুত নয়৷ তাই পিচ্ছিল করার জেল ব্যবহারের পরও অনেক সময় সেখানকার মাসেল বা টিস্যু ছিঁড়ে যায়৷ জোর করে এধরনের সঙ্গমের পর মলত্যাগ কঠিন হয়ে পড়তে পারে৷ তাছাড়া পায়ুপথ বা মলদ্বার ব্যাকটেরিয়ায় পূর্ণ থাকে৷ তাই এধরনের সঙ্গমের ফলে একজনের দেহ থেকে আরেকজনের দেহে ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণের সুযোগ থাকে৷ এনাল সেক্সের পর কোনধরনের রক্তপাত বা শারীরিক জটিলতা দেখা দিলে দ্রুত চিকিৎসকের শরনাপন্ন হওয়া জরুরী৷

admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.