আমার লুঙ্গিতেই আটকে আছেন!কাকে একথা বললেন পরীমণি?

আমার লুঙ্গিতেই আটকে আছেন!কাকে একথা বললেন পরীমণি?

গ্রেপ্তা;রি থেকে’; হাজতবাস, তা’রপর জামি’নে ছাড়া ! আ’লো’চনার শীর্ষে বাং’লাদেশি অভিনে’ত্রী পরীমণি । জন্মদিনে ‘লুঙ্গি ‘ডান্সে’ মজে’ন অভিনেত্রী’। আর তা’ নিয়ে শুরু হয়েছে জো’র আলোচ’না। কটাক্ষের শিকার হয়েছে’ন অভিনেত্রী’। সমালোচক’দে’রই এবার’ জবাব দিলেন তি’নি সমা’লোচকদের উদ্দে’শ্যে রবিবার রাতে নি’জের ভেরিফায়েড ‘ফেসবুক পেজে একটি পোস্ট করেন তিনি। সমালোচকদে’র উপহাস করে’ পরীমণি লিখেছেন, “–এই যে আমি গুণিনের শুটিং থেকে একটু ছুটি নিয়ে’ বার্থডে সেলিব্রেশন, সারাদিন শিশুদের ‘নিয়ে হইহুল্লোড়, ‘সন্ধ্যা ‘থেকে লেটনাইট পার্টি, প’রদিন আর্লি মর্নিং আদালত শেষ ‘করে’ আবার’ শুটিয়ে জয়ে’ন করলাম।

দারুণ একটি সিনেমার’ কাজ শেষ করে বাড়ি ফিরে দেখি’ আপনারা আ’মা”র সেই’ লুঙ্গিতেই আট’কা পড়ে রই”লেন! আহারে, ‘আপনাদের দিকে তাকালে নিজেকে সত্যিই বড় সুখী মনে হয়। মাসে রাজধানী ঢাকার পাঁচতারা হোটেলে হয় পার্টি। সেখানে অতিথিদের ড্রেস কোড লাল ও সাদা রঙের পোশাক। অতিথিদের পাঠানো কার্ডে সে কথাও জানানোর পাশাপাশি অভিনেত্রী লেখেন, “বিশুদ্ধ আত্মা নিয়ে আমার কাছে এসো এবং সারাজীবন আমার সঙ্গে থেকো বিমানের’ ক’কপিটের ‘আদলে’ সাজানো হয় পরীমণির জন্ম’দিন সেলিব্রেশনের মঞ্চ। মঞ্চের’ওপরের লাল রঙে’র ইংরেজিতে লেখা ‘হয়- ‘ফ্লাই উইথ পরীমণি’ অর্থাৎ ‘পরীমণির সঙ্গে ওড়ো’। সেখানেও কেক কাটেন বাংলাদেশে’র অভিনে’ত্রী। মঞ্চে’ প্রথমবার ‘পরীমণি আসতেই উ’ল্লাস ধ্বনিতে তাঁকে স্বাগ’ত জা’নানো হয়।

গ্রেপ্তা;রি থেকে’; হাজতবাস, তা’রপর জামি’নে ছাড়া ! আ’লো’চনার শীর্ষে বাং’লাদেশি অভিনে’ত্রী পরীমণি । জন্মদিনে ‘লুঙ্গি ‘ডান্সে’ মজে’ন অভিনেত্রী’। আর তা’ নিয়ে শুরু হয়েছে জো’র আলোচ’না। কটাক্ষের শিকার হয়েছে’ন অভিনেত্রী’। সমালোচক’দে’রই এবার’ জবাব দিলেন তি’নি সমা’লোচকদের উদ্দে’শ্যে রবিবার রাতে নি’জের ভেরিফায়েড ‘ফেসবুক পেজে একটি পোস্ট করেন তিনি। সমালোচকদে’র উপহাস করে’ পরীমণি লিখেছেন, “–এই যে আমি গুণিনের শুটিং থেকে একটু ছুটি নিয়ে’ বার্থডে সেলিব্রেশন, সারাদিন শিশুদের ‘নিয়ে হইহুল্লোড়, ‘সন্ধ্যা ‘থেকে লেটনাইট পার্টি, প’রদিন আর্লি মর্নিং আদালত শেষ ‘করে’ আবার’ শুটিয়ে জয়ে’ন করলাম।

দারুণ একটি সিনেমার’ কাজ শেষ করে বাড়ি ফিরে দেখি’ আপনারা আ’মা”র সেই’ লুঙ্গিতেই আট’কা পড়ে রই”লেন! আহারে, ‘আপনাদের দিকে তাকালে নিজেকে সত্যিই বড় সুখী মনে হয়। মাসে রাজধানী ঢাকার পাঁচতারা হোটেলে হয় পার্টি। সেখানে অতিথিদের ড্রেস কোড লাল ও সাদা রঙের পোশাক। অতিথিদের পাঠানো কার্ডে সে কথাও জানানোর পাশাপাশি অভিনেত্রী লেখেন, “বিশুদ্ধ আত্মা নিয়ে আমার কাছে এসো এবং সারাজীবন আমার সঙ্গে থেকো বিমানের’ ক’কপিটের ‘আদলে’ সাজানো হয় পরীমণির জন্ম’দিন সেলিব্রেশনের মঞ্চ। মঞ্চের’ওপরের লাল রঙে’র ইংরেজিতে লেখা ‘হয়- ‘ফ্লাই উইথ পরীমণি’ অর্থাৎ ‘পরীমণির সঙ্গে ওড়ো’। সেখানেও কেক কাটেন বাংলাদেশে’র অভিনে’ত্রী। মঞ্চে’ প্রথমবার ‘পরীমণি আসতেই উ’ল্লাস ধ্বনিতে তাঁকে স্বাগ’ত জা’নানো হয়।

admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.