ব’ন্ধু’র স’ঙ্গে স্ত্রী’কে আ’প’ত্তিক’র অ’বস্থা’য় দে’খার পর গা’ছের ডালে স্বা’মী’র লা’শ

ব’ন্ধু’র স’ঙ্গে স্ত্রী’কে আ’প’ত্তিক’র অ’বস্থা’য় দে’খার পর গা’ছের ডালে স্বা’মী’র লা’শ

শাহাদুল ইসলাম সাজু, জয়পুরহাট থেকে: জয়পুরহাট সদর উপজে’লার পশ্চিম রামকৃষ্ণপুর সরদার পাড়া গ্রামে স্ত্রীর অনৈ’তিক সম্পর্কে বাধা দেওয়ায় রেজাউল নামে এক ব্যক্তিকে হ’ত্যার অ’ভিযোগ তার পরিবারের।

পু’লিশ জানায়,নি’হত রেজাউল ইসলাম (৪২) জয়পুরহাট সদর উপজে’লার পশ্চিম রামকৃষ্ণপুর সরদার পাড়া গ্রামের আব্দুল খালেকের ছেলে। ম’ঙ্গলবার (২৮ ডিসেম্বর) সকালে ওই গ্রামের মফিজ মেম্বারের বাড়ির পাশের জ’ঙ্গলের ভিতরে পুকুর পারে একটি গাছের ডালে ঝুলানো মর’দে’হ উ’দ্ধার করে হাসপাতাল মর’্গে পাঠিয়েছে পু’লিশ।
পু’লিশ ও স্থানীয়রা জানান, জয়পুরহাট সদর উপজে’লার পশ্চিম রামকৃষ্ণপুর সরদার পাড়া গ্রামে গত ২৩ ডিসেম্বর নিজ স্ত্রী মনোয়ারা বেগমের (৩৫) সাথে বন্ধু শহিদুল ইসলামের সাথে আপ’ত্তিকর অবস্থায় দেখতে পান স্বামী রেজাউল ইসলাম। এ বি’ষয়ে বৈঠকও হয় তাদের। এরপর গতকাল সোমবার রাতে রেজাউলকে ডেকে নিয়ে যায়, আর খোঁজে পাননি তার পরিবার। আজ ম’ঙ্গলবার সকালে রেজাউলের মর’দে’হ পাওয়া গেল জ’ঙ্গলের ভিতর পুকুর পাড়ের একটি গাছের ডালেব সাথে।
পু’লিশ মর’দে’হ উ’দ্ধার করে জয়পুরহাট আধুনিক জে’লা হাসপাতাল মর’্গে পাঠিয়েছে। নি’হতের পিতা আব্দুল খালেক বলেন, তার ছেলের বন্ধু পাশের গ্রামের শহিদুলের সাথে আমা’র নিজ বাড়িতে রেজাউল ইসলামের স্ত্রী মনোয়ারার সাথে আপ’ত্তিকর অবস্থা দেখতে পায়। পরে বি’ষয়টি নিয়ে গো’পনে বৈঠক হয়েছে। এরপর গতকাল সোমবার রাতে দুজন রেজাউলকে তার বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। আজ সকালে জ’ঙ্গলে পুকুর পাড়ের একটি গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় ছেলের মর’েদহ পাওয়া গেল। আমা’র ছেলেকে পরিকল্পিতভাবে হ’ত্যার পর মর’েদহ গাছের ডালে ঝুলিয়ে রেখেছে। সঠিক ত’দন্ত করে দোষীদের কঠোর শাস্তি চাই। জয়পুরহাট সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আলমগীর জাহান বলেন, খবর পেয়ে পু’লিশ মর’দে’হ উ’দ্ধার করে হাসপাতাল মর’্গে পাঠানো হয়েছে। ময়না ত’দন্ত শেষে জানা যাব’ে মৃ’ত্যুর কারণ।

admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.