বী’র্যের প’রিমাণ ক’তটুকু হ’লে স’ঙ্গী প’রিপূর্ণ তৃ’প্তি পায়..

0
31

“বী’র্য নামক উপাদান, যার রঙ সাদা ও গাঢ়, দেখতে মূ’লপদার্থের মতো। এ বী’র্য যখন বের হয়, তখন তীব্রবেগে লাফিয়ে লাফিয়ে বের হয়। যা ম’হিলাদের ডিম্ভাণুতে পূঁছে গ’র্ভধারণের উপকরণে রূপান্তরিত হয়। মনে রাখতে হবে যে, মানুষ জম্মের মূ’ল উপাদান হলো বী’র্য। আর এ বী’র্য যখন কোনো যুবকের লি’ঙ্গ থেকে বের হয় তখন তা পরিমাণে তিন থেকে ছয় মাশা (এক মাশা=আট রতি) পর্যন্ত হয়ে থাকে। বী’র্যের আসল উপাদান

 

 

 

হলো কীট বা বী’র্যের পোকা। যা দ্বারা ভ্রূণ হয়। বী’র্যের মাঝে এ ধরণের কীট না থাকলে এর মাধ্যমে স’ন্তান জম্ম হবে না।এই কীট বা পোকা বী’র্যের মধ্যে বেহিসাব থাকে। যদিও ভ্রূণ তৈরীর জন্য একটি কীটই যথেষ্ট। কীটগুলোর মাথা কিছুটা গোলাকার এ চেপটা হয়ে থাকে। এগুলো আকারে এতো ছোট যে, দূরবীন বা অণুবীক্ষণ যন্ত্র ছাড়া দেখা অসম্ভব। আর প্রতিটি না’রী স’ঙ্গীই স’ন্তান কা’মনা করে। তাই পরিপূর্ণ বী’র্যে স’ঙ্গীর

 

 

 

আকাঙ্খা মেটাতে নিজে সুস্থ্য থাকুন।যথা—কলিজা, হৃৎপিণ্ড ও মস্তিঙ্ক ইত্যাদি। বী’র্য বৃ’দ্ধি করতে হলে এসব অ’ঙ্গ সুস্থ থাকতে হবে। কারণ মানুষ যে খাবারই গ্রহণ করে, তা দ্বারা পরিস্কার র’ক্ত তৈরী হয়। স’ঙ্গী হিসেবে নিজের চেয়ে বেশি ব’য়সের পুরু’ষ খোঁজের না’রীরা। গবেষকদের মতে, এই গতানুগতিক ধারায় বেশ স’মস্যা জড়িয়ে রয়েছে। যদিও পুরু’ষরা বিয়ের জন্য বা প্রে’ম করার জন্য ব’য়সে ছোট মে’য়েদের পছন্দ করেন, কিন্তু এখন না’রীদের পছন্দের ক্ষেত্রে কম ব’য়সী পুরু’ষরা বেশ এগিয়ে রয়েছেন।

 

 

 

 

এর বাস্তবিক কিছু সুবিধাও রয়েছে। জেনে নিন বিশেষজ্ঞদের দেওয়া এমন ৫টি সুবিধার কথা। ১. স’ঙ্গীর কাছে আপনি অনেক বেশি কিছু : আবেগপ্রসূত, অর্থনৈতিক এবং জীবনের অ’ভিজ্ঞতার দিক থেকে এই না’রী অনেক বেশি কিছু হিসেবে বিবেচিত হন একজন পুরু’ষের কাছে। এমন না’রী তার জ্ঞান ও দৃষ্টিকোণের দিক থেকে পুরু’ষের কাছে শ্রদ্ধা পান। আপনার সফলতা এবং ব্যক্তিস্বাধীনতায় মুগ্ধ থাকবেন স’ঙ্গী। ২. স’ঙ্গী আপনাকে খুশী করতে উদগ্রীব : কম ব’য়সী পুরু’ষরা এমন স’ঙ্গিনীকে খুশী করতে উদগ্রীব হয়ে থাকেন। বেশি ব’য়সের স’ঙ্গিনীকে ভালো রাখতে এমন পুরু’ষই সবচেয়ে স্মা’র্ট, চটপটে এবং অ’ভিজ্ঞ। এই প্রে’মিক

 

 

 

অনেক বেশি আ’কর্ষণীয় এবং মা’নসিক শ’ক্তি রাখেন। তারা ঘুরে-বেড়াতে যথেষ্ট উত্‍সাহী। ৩. তারা ঝামেলা মুক্ত : তিরিশের কোঠায় যে পুরু’ষ একাকী’, তিনি হয়তো আগের কোনো স’ম্পর্কে আ’ঘাতপ্রা’প্ত মানুষ। অথবা তিনি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ কোনো স’ম্পর্কে জড়াননি। এ ধরনের পুরু’ষরা ঝামেলাবিহীন থাকেন। তারা প্রে’ম-ভালোবাসার বি’ষয়ে যথেষ্ট আশাবা’দী। তিনি বেশি ব’য়সী না’রীর প্রতি আস্থা রাখেন।৪. তিনি গবে’ষণা

 

 

 

করতে চান : পুরু’ষদের বেশি ব’য়সী না’রীর প্রতি আকর্ষণের আরেকটি কারণ হলো, তারা গবে’ষণা ও পরীক্ষা-নিরীক্ষায় আ’গ্রহী। ভালোবাসা নিয়ে তারা এমন অ’ভিজ্ঞতা ও শিক্ষা নিতে চান , যা হয়তো সহসা অর্জন করা যায় না। ৫. তিনি আপনার তারুণ্য ফিরিয়ে দেবেন : কম ব’য়সী পুরু’ষের স’ঙ্গে বন্ধুত্ব থাকলে তিনি আপনাকে পুরনো দিনে ফিরিয়ে নিয়ে যাবেন। আপনার ব’য়স আরো কমে গেছে বলে অনুভব করবেন। সময় খুব মজার ও উপভোগ্য হবে। বর্তমানের অনেক ঝামেলা আপনাকে আর বি’ষণ্ন করে তুলতে পারবে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here