<
JOB

গুগলের সফটওয়্যার প্রকৌশলী অবসরে যেতে চান ৩৫–এ, জমানো ৪১ কোটিতে কাটাতে চান জীবন

গুগলে চাকরি করেন। বয়স ২২ বছর। সেই কর্মচারী ৩৫ বছর বয়সে অবসর নেওয়ার পরিকল্পনা করছেন। এর কারণ হলো সঞ্চয় করা কাঁড়ি কাঁড়ি ডলারে তিনি বাকি জীবন কাটিয়ে দিতে চান। অর্থ জমানোর উপায় হিসেবে তিনি বলছেন, অর্থ অপচয় করেন না। অল্প বয়স থেকে অর্থ বিনিয়োগ শুরু করেছেন।

সিএনসিবির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ওই কর্মীর নাম ইথান নগনলি। তিনি গুগলের সফটওয়্যার প্রকৌশলী হিসেবে কাজ করেন। ২২ বছর বয়সী ইথানের পরিকল্পনা হলো ৩৫ বছর বয়সে অবসরে যাবেন। এই সময়ে তাঁর সঞ্চয় দাঁড়াবে ৪১ কোটি রুপি। আর এই অর্থে বাকিটা জীবন তিনি কাটিয়ে দিতে চান।
ইথানকে অল্প বয়সে বিনিয়োগ করে আয় করা শিখেয়েছেন মা–বাবা। ২২ বছর বয়সী এ তরুণের পকেটে এখন আছে ১ লাখ ৩৫ হাজার ডলার। এই অর্থ তিনি বিনিয়োগ করে রেখেছেন। চাকরি করার মধ্যে বিভিন্ন জায়গায় বিনিয়োগ করেছেন। ফ্লোরিডা ও ক্যালিফোর্নিয়াতে তাঁর বাড়ি আছে। বর্তমানে তাঁর বাস ক্যালিফোর্নিয়ার অরেঞ্জ কান্ট্রিতে। ভবিষ্যতে আরও সম্পত্তির মালিক হওয়ার পরিকল্পনা আছে তাঁর। তিনি এমনভাবে অর্থ ব্যয় করেন, যেন বাঁচানো অর্থে বিনিয়োগের সুযোগ থাকে।
গুগলে কাজ করে ইথান পান ১ লাখ ৯৪ হাজার মার্কিন ডলার। এর মধ্যে ১ লাখ ৩৪ হাজার মার্কিন ডলার তাঁর মূল বেতন। এর সঙ্গে তিনি আরও ১৫ শতাংশ পান বার্ষিক বোনাস। প্রতিবছর ১০ হাজার মার্কিন ডলার অনকল ক্ষতিপূরণ হিসেবে পান। আর স্টক ইউনিট থেকে পান ৩০ হাজার মার্কিন ডলার।

গত কয়েক মাসে অনেক কর্মী ছাঁটাই করেছে গুগল। তা সত্ত্বেও গুগল ও মেটা ২০২২ সালে শীর্ষ বেতন দেওয়া কোম্পানিতে পরিণত হয়েছে। গুগলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সুন্দর পিচাইয়ের নেতৃত্বাধীন টেক জায়ান্ট কোম্পানিটি কর্মীদের দেওয়া সুবিধা এবং উচ্চ বেতন প্যাকেজের জন্য বিখ্যাত। এ বছরের শুরুতে গণমাধ্যম বিজনেস ইনসাইডের প্রতিবেদনে গুগলের কর্মচারীদের গড় বেতনের কথা উঠে আসে। ২০২২ সালে গুগলের কর্মীরা চাকরি হারানোসহ নানা কারণে ক্ষতিপূরণ পেয়েছেন ২ লাখ ৭৯ হাজার ৮০২ ডলার। একই বছরে গুগলে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্য সবচেয়ে বেশি বেতন পায় সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়াররা। তাঁদের সর্বোচ্চ বেতন ৭ লাখ ১৮ হাজার ডলার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *